ফাইভার ব্যবহারের শর্তাবলী কি? Fiverr terms and conditions

0Shares

 

আপনি যদি ফাইভারে কাজ করেন আপনাকে অবশ্যই ফাইভার ব্যবহারের শর্তাবলী অর্থাৎ, Fiverr terms and conditions মেনে চলতে হবে। অন্যথায় আপনার আইডি ডিজেবল হবে।

What is Fiverr laws in Bangla? ফাইবারের নিয়ম কানুন নিচে দেওয়া হল।

Fiverr terms of service

Last Update: December 2021

Fiverr.com এ স্বাগতম।

ফাইভার মার্কেটপ্লেস মাইকেল কাউফম্যান এবং শাই উইঙ্গার প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

এবং এটি ২০১০ সালের ফেব্রুয়ারিতে চালু হয়ে ছিল।

এখন এটি সবচেয়ে জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস।

প্রতিদিনের ফাইভার তাদের গ্রাহকের জন্য নতুন বৈশিষ্ট্য আপডেট করে।

আপনি যদি ফাইভারের সাথে কাজ করেন আপনাকে অবশ্যই Fiverr terms of service বা শর্তাবলী মেনে চলতে হবে।

অন্যথায়, আপনার আইডি অক্ষম করা হবে।

অবশ্যই মনে রাখতে হবে, তাদের অটো রোবটগুলি পরীক্ষা করার নিয়ম রয়েছে।

চলুন, দেখে নেওয়া যাক, ফাইভার ব্যবহারের শর্তাবলী –

 

ফাইভার ব্যবহারের শর্তাবলী কি? Fiverr terms and conditions

What  is fiverr terms and conditions in bangla?

ফাইভার এমন একটা মার্কেটপ্লেস যেখানে বিভিন্ন ধরনের সেবা আদান প্রদান করা হয়।

তবে, আপনাকে অবশ্যই নিন্মবর্ণিত Fiverr laws মেনে ফাইভার ব্যাবহার করতে হবে।

সুতরাং, এই মার্কেটপ্লেস ব্যাবহার শুরু করার আগে এখানে সেবা আদান প্রদানের শর্তগুলো ভাল করে পড়ে নিন।

Fiverr rules in bangla – ফাইবারের নিয়ম কানুন

১. ফাইভার একাউন্ট ব্যবহার করা, একাউন্ট খোলা অথবা “Accept or agree to the Terms of Service” বাটনে ক্লিক করার মানে হচ্ছে আপনি Fiverr terms of Service.

অর্থাৎ, সেবা আদান প্রদানের শর্তবলী মেনে নিয়েছেন বা একমত পোষণ করছেন।

আপনি যদি এই শর্তগুলোর সাথে একমত পোষণ না করেন তবে এই সাইট ব্যবহার করা এমনকি সাইটে প্রবেশ করা থেকেও বিরত থাকুন।

২. ফাইভার ব্যবহার করার জন্য আপনার বয়স অবশ্যই ১৩ বছর বা তার বেশি হতে হবে।

১৩ বছরের  নিচে হলে এখানে সেবা আদান প্রদান করতে হলে পিতামাতার অনুমতি লাগবে।

কারন, আপনি যখন এই সাইট ব্যবহার করছেন তার মানে দাড়াচ্ছে যেকোন আন্তর্জাতিক ডিল করার জন্য আপনার বয়স আঈনত বৈধ।

সুতরাং, আপনার বয়স যদি ১৩ বছরের কম হয় তবে এই সাইট আপনার ব্যবহার করা উচিৎ নয়।

৩. ফাইভারের কাস্টমার সাপোর্ট সেন্টার দিন রাত ২৪ ঘন্টা এবং সপ্তাহে ৭ দিনই খোলা থাকে।

ফাইভার সাইট নিয়ে অথবা Fiverr terms of Service নিয়ে যদি কোন প্রশ্ন থাকে তবে যোগাযোগ করুন। উল্লেখ্য যে, এটা লাইভ সাপোর্ট না।

 

মূল শর্তাবলী – Fiverr terms and conditions

ফাইভার ব্যবহারের শর্তাবলী নিচে আলোচনা করা হল-

১. ফাইভারে প্রদত্ত সেবাগুলোকে Gig বলা হয়।

২. গিগের মাধ্যমে যারা সব সার্ভিস বা সেবা প্রদান করে থাকেন তাদেরকে Sellers বলা হয়।

৩. যারা এই সার্ভিসগুলো কেনে তাদেরকে Buyer বলা হয়।

৪. Gig Page হচ্ছে সেই যায়গা যেখানে একজন সেলার কি কি সেবা দিতে চান বা কাজ করতে চান সেগুলোর বিস্তারিত বর্ননা দেওয়া থাকে।

আর, ক্লায়েন্ট সেখান থেকে গিগ কিনে সেবা বা কাজ অর্ডার করেন।

৫. Gig Extra হচ্ছে মূল কাজের সাথে সম্পর্কযুক্ত অতিরিক্ত কিছু সেবা যেগুলো গিগের নিচে আলাদা ভাবে একজন সেলার যুক্ত করেন।

আর, এই সেবার জন্য ক্লায়েন্টকে আলাদা চার্জ করা হয়।

৬. একাধিক সেবার জন্য Gig Extras থেকে অর্ডার না করে যদি একই গিগ বার বার অর্ডার করা হয় তবে তাকে Gig Multiples বলে।

৭. Gig Packages হচ্ছে একাধিক সার্ভিস একত্রে অফার করা। এর সুবিধা হচ্ছে একই গিগে ভিন্ন ভিন্ন দামে ভিন্নি ভিন্ন সার্ভিস সাজিয়ে রাখা যায়।

অনেকটা আমরা মোবাইলে যেমন বান্ডেল প্যাক কিনি তেমন। ফাইভারে একটা গিগে সর্বোচ্চ ৩ টা প্যাকেজ এড করা যায়।

 

Custom Offers

৮. Custom Offers হল এমন বিশেষ প্রস্তাব (Price Quote) যেটা বায়ারদের কিছু নির্দিষ্ট চাহিদার প্রেক্ষিতে একজন সেলার ক্লায়েন্টকে অফার করে।

৯. একজন সেলারের কাছ থেকে Custom Offer পাবার জন্য একজন বায়ার যখন তার চাহিদার বিস্তারিত বিবরন দিয়ে সেলারকে মেসেজ দেয় তখন তাকে Custom Order বলে।

কিন্তু, বায়ার যদি গিগ ভিজিট করে “Contact me” অপশন থেকে মেসেজ দেয় তবে সেটা সাধারন মেসেজ।

আর যদি প্রফাইল ভিজিট করে সর্বশেষ গিগের পাশে Request a Custom Order অপশন থেকে ম্যাসেজ দেয়।

তবে, সেটা হবে Custom Order এদের মাঝে মৌলিক কোন পার্থক্য নেই।

উভয় ক্ষেত্রেই রিপ্লাই দেওয়ার সময় কাস্টম অফার পাঠানো যাবে।

১০. Order হচ্ছে ক্লায়েন্ট ও সেলারের মাঝে আনুষ্ঠানিক চুক্তি। যখন কোন গিগ অর্ডার করা হয়।

১১. Disputes হচ্ছে একটি অর্ডার চলাকালীন সময়ে বায়ার ও সেলারের মাঝে চলমান মতবিরোধ যেকোন ধরনের ঝগড়া বা মতবিরোধ।

১২. Revenue হচ্ছে সেই পরিমান টাকা যেটা একজন সেলার অর্ডার কমপ্লিট হবার পর উপার্জন করেন।

১৩. Sales Balance হচ্ছে সেই পরিমান Revenue যেটা ক্লিয়ার হয়ে একাউন্টে জমা হয়। এবং, সেলার চাইলে যেকোন সময় তুলতে অথবা ফাইভারে খরচ করতে পারেন।

উল্লেখ্য যে, ফাইভারে অর্ডার কমপ্লিট করার ১৪ দিন পর ডলার Sales Balance এ যোগ হয়।

তবে টপ রেটেড সেলারদের ৭ দিন পর যোগ হয়।

১৪. Shopping Balance হচ্ছে ফাইভার থেকে কেনাকাটা করার মত ক্রেডিট যেটা পূর্বের কোন অর্ডার কেন্সেল হবার ফলে ক্লায়েন্টের একাউন্টে ফিরে এসেছে।

এছাড়া ফাইভারের পক্ষ থেকে গিগের মাধ্যমে সার্ভিস কেনার জন্য যে প্রমোশনাল অফার দেওয়া হয় তাকে Shopping Balance বলে।

 

মূল শর্তসমূহের সংক্ষিপ্ত বিবরন :

১. শুধুমাত্র রেজিস্টার্ড বা নিবন্ধিত ব্যহারকারীরাই ফাইভারে সেবা আদান প্রদান করতে পারবেন।

রেজিস্ট্রেশন ফ্রিতেই করা যায়।

২. ফাইভারের গিগ প্রাইস বা সেবার মূল্য ৫ ডলার থেকে শুরু হবে।

সেলার চাইলে কোন কোন গিগের Starting Price ৫ ডলারের বেশিও সেট করতে পারবে।

৩.  যখন একটা গিগ অর্ডার হয় তখন ক্লায়েন্ট ফাইভারকে গিগের সম্পূর্ণ মূল্য অগ্রিম পরিশোধ করে দেন।

৪.  গিগ পেইজের “Order Now” বাটন ব্যাবহার করে গিগ অর্ডার করা যায় অথবা ইনবক্সে “Custom offer” পাঠিয়েও অর্ডার করা যায়।

গিগের ফি এবং চার্জ এর ব্যাপারে “purchasing section” এ বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

৫. সেলারকে অবশ্যই সঠিক সময়ে সঠিক ভাবে কাজ করে জমা দিতে হবে। এবং, অকারণে নিয়মিত অর্ডার কেন্সেল করা যাবে না।

বেশি পরিমান অর্ডার কেন্সেল হলে সেলারের রেপুটেশন নষ্ট করে এবং গিগের রেঙ্কের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলে।

তবে মাঝে মধ্যে বায়ার ও সেলার উভয়ের সম্মতিতে অল্প সংখ্যক অর্ডার কেন্সেল হলে সমস্যা নেই।

৬. যোগ্যতা, সামর্থ্য ও কর্মদক্ষতার ভিত্তিতে একজন সেলারকে বিভিন্ন রেঙ্ক বা লেভেল দেওয়া হয়।

৭. একজন সেলার ফাইভারে অর্ডার পাওয়া ছাড়া ক্লায়েন্টের কাছ থেকে অন্য কোনভাবে পেমেন্ট নিতে পারবে না।

এমনকি ক্লায়েন্ট অফার করলেও নেওয়া যাবে না।

৮. অর্ডার ডেলিভারি দেওয়ার পর সেখানে সম্পূর্ণ কতৃত্ব ক্লায়েন্টের।

অর্থাৎ ক্লায়েন্ট কাজ গ্রহন না করলে ফাইভার ক্লায়েন্টকে কোন ধরনের জোর করবে না।

৯. মার্কেটিং ও প্রমোশনের জন্য ডেলিভারি দেওয়া সব কাজ বা কাজের স্যাম্পল ফাইভার ব্যবহার করার অধিকার রাখে।

 

সেলার – SELLERS

১. সেলাররা গিগ বানানোর মাধ্যমে বায়ারকে তার সার্ভিস কেনার অনুমতি দিয়ে থাকেন।

২. বায়ারের সাথে কথা বলার পর সেলার চাইলে ক্লায়েন্টকে ইনবক্সেই সরাসরি Custom Offer সেন্ড করতে পারেন।

৩. প্রতিটি কাজ সফল ভাবে সম্পন্ন হবার পর অর্ডারের ২০% ফাইভার ফি হিসেবে কেটে রাখে এবং ৮০% সেলারের একাউন্টে জমা হয়।

৪. কোন অর্ডার যদি কোন কারনে কেন্সেল হয়ে যায়। তবে, সেই অর্ডারের ডলার ক্লায়েন্টের শপিং বেলেন্সে যোগ হবে।

৫. কোন অর্ডার সম্পন্ন হবার ১৪ দিন পর সেলার সেই অর্ডার থেকে আয়কৃত রেভিনিউ তুলতে পারবে।

তবে টপ রেটেড সেলাররা ৭ দিন পর রেভিনিউ তুলতে পারবেন।

এই সময়ের মাঝে যদি কোন বায়ার ফিরে এসে কাজ নিয়ে কমপ্লিন করে আর সেটি যথাযথ হয় তবে সম্পূর্ণ ডলার তাকে ফেরত দেয়া হবে।

আসল কথা হচ্ছে ক্লায়েন্ট সাপোর্টে কমপ্লিন করলেই সব ফেরত দিতে হবে।

৬. সেলার AdWords platform এর মাধ্যমে গিগ প্রমোট বা মার্কেটিং করতে পারবে না। AdWords platform কি সেটা না বুঝলে গুগলে সার্চ করুন।

৭. ফাইভারের রেভিনিউ তোলার জন্য ফাইভার নির্ধারিত যেকোন মেথড ব্যবহার করা যাবে।

৮. প্রতিটা অর্ডার কমপ্লিট হবার পর বায়ার অর্ডার পেজে রিভিউ দিতে পারবে। এবং বায়ারের রিভিউর উপর নির্ভর করে সেলারের রেটিং পরিমাপ করা হবে।

যে কোন লেভেল বা রেঙ্ক পেতে হলে নির্দিষ্ট পরিমান রেটিং থাকতে হবে।

৯. অবৈধ বা প্রতারণামূলক কার্যকলাপ রোধ করতে কখনো কখনো ফাইভার সাময়িকভাবে রেভিনিউ তোলার অপশন ডিজেবল করে দেয়।

এটা নিরাপত্তা জনিত কারনে হতে পারে।

অর্থাৎ, একাউন্টে যদি কোন অস্বাভাবিক কার্যক্রম হয়, এবং যদি বায়ার রিপোর্ট করে অথবা একই পেমেন্ট ডিটেইলস যদি একাধিক একাউন্টে যোগ করা থাকে। তবে সেক্ষেত্রে এমনটা হতে পারে।

 

গিগ – Gigs

১. রেঙ্ক বা লেভেলের উপর ভিত্তি করে একজন সেলার নির্দিষ্ট পরিমান একটিভ গিগ পোষ্ট করতে পারবে।

২. একজন নতুন সেলার ৭ টা গিগ, লেভেল ১ সেলার ১৫ টা গিগ, লেভেল ২ সেলার ২০ টা গিগ এবং টপ রেটেড সেলাররা ৩০ টা গিগ তৈরি করতে পারবেন।

৩. ফাইভারের সকল গিগই User Generated Content (এটা নিয়ে সামনে আলোচনা হবে)।

 

যে কারনসমূহের জন্য ফাইভার গিগ ডিলিট করে দেয় :

১. অবৈধ বা প্রতারণাপূর্ণ সেবা প্রদান করা।

২. Copyright আঈন ভঙ্গ, Trademark আঈন লঙ্ঘন, অথবা ফাইভারের “Intellectual Property Claims Policy” অনুযায়ী কোন ৩য় পক্ষের শর্ত ভঙ্গ করে সেবা বা সার্ভিস দেওয়া।

যেমন, WordPress এর প্রিমিয়াম টেমপ্লেট অথবা থিম ক্রেক করে অল্প দামে ফাইভারে সেল করা।

৩. প্রাপ্ত বয়স্কদের কেন্দ্র করে কোন সার্ভিস প্রদান। যেমন, পর্ণগ্রাফী

৪. সরাসরি কারও গিগ কপি করা।

৫. স্পেমিং, আজে বাজে অথবা অযাচিত কোন সেবা প্রদান করা।

৬. এমন গিগ যেটা ক্লায়েন্টকে বিভ্রান্ত করবে।

৭. কোন পণ্যের রিসেলিং করা। যেমন, Affiliate Marketing

৮. এমন কোন সেবা, যা প্রদান করতে ৩০ দিনের বেশি সময় লাগবে।

উপরে বর্ণিত যেকোন কারনে কোন গিগ ফাইভার কতৃক ডিলেট করা হলে ফাইভার সেই একাউন্ট সাসপেন্ড করার ক্ষমতা রাখেন।

সুতরাং, সাবধান!!!

৯. নিয়ম ভঙ্গের ফলে ডিলেট করে দেয়া কোন গিগ পুনরায় ফিরে পাওয়া বা এডিট করা যাবে না।

১০. পারফর্মেন্স খারাপ হলে ফাইভারের সার্চ থেকে গিগ উধাউ করে দেওয়া হবে।

১১. Gig description ও Requirements box এ ফাইভার অনুমতি দেয় এমন ওয়েবসাইটের লিঙ্ক ব্যবহার করা যাবে।

এছাড়া অন্য কোন ওয়েবসাইটের লিঙ্ক থাকলে আপনার গিগ একটিভ হবে না।

যদি এমন কোন লিঙ্ক প্রফাইলে থাকে তবে সেটা প্রফাইল থেকে মুছে দেওয়া হবে।

আর ঘাউড়ামী করে বার বার এই কাজ করলে প্রফাইল “Restricted ” করে দেওয়া হবে।

১২. ফাইভারের শর্তের সাথে সাংঘর্ষিক এমন যে কোন গিগ ফাইভার মুছে দেবে।

১৩.  গিগ পোষ্ট করার সময় গিগে প্রদত্ত সার্ভিসের সাথে মিল রেখে গিগ ইমেজ আপলোড করতে হবে। একজন সেলার প্রতিটা গিগে ৩ টা ছবি আপলোড করতে পারবেন।

১৪. ফাইভারের নিয়ম মেনে গিগে ভিডিও আপলোড করা যাবে।

১৫. গিগে এমন কোন বক্তব্য দেওয়া যাবে না যা ফাইভার শর্তাদি বিরোধিতা করে।

১৬. সেলার চাইলে গিগের Starting Price –  5, 25, 50 অথবা 100 ডলার সেট করতে পারবে।

১৭. বিভিন্ন প্যাকেজ আকারেও গিগের মূল্য সেট করে দেওয়া যাবে।

 

Gig Extras

১. Gig Extra হচ্ছে মূল কাজের সাথে সম্পর্কযুক্ত অতিরিক্ত কিছু সেবা প্রদান করা।

যেগুলো গিগের সাথে আলাদা ভাবে একজন সেলার যুক্ত করেন।

এই সেবার জন্য ক্লায়েন্টকে আলাদা চার্জ করা হয়।

২. Gigs সেকশনে যে শর্তগুলো আলোচনা করা হয়েছে সেই শর্তগুলো ভঙ্গ হলে ফাইভার যেকোন Gig Extra মুছে দিতে পারবে। এ

মনকি এই জন্য ফাইভার চাইলে গিগটাই রিমুভ করে দিতে পারবে।

৩. সেলারের লেভেলের উপর ভিত্তি করে গিগ এক্সটার পরিমান কম বেশি হবে।

যেমন,

New Sellers : ১ টা গিগে ২ টা গিগ এক্সট্রা এড করতে পারবেন। একটা গিগ এক্সটা ২০ ডলারের বেশি হওয়া যাবে না।

Level 1 Sellers : ১ টা গিগে ৪ টা গিগ এক্সট্রা এড করতে পারবেন। একটা গিগ এক্সটা ৪০ ডলারের বেশি হওয়া যাবে না।

Level 2 Sellers : ১ টা গিগে ৫ টা গিগ এক্সট্রা এড করতে পারবেন। একটা গিগ এক্সটা ৫০ ডলারের বেশি হওয়া যাবে না।

Top Rated Sellers : ১ টা গিগে ৬ টা গিগ এক্সট্রা এড করতে পারবেন। একটা গিগ এক্সটা ১০০ ডলারের বেশি হওয়া যাবে না।

৪. গিগ এক্সটা তে যে সেবা অফার করা হবে তা অবশ্যই মূল গিগের সাথে সম্পর্ক যুক্ত হতে হবে।

৫. প্রতিটি গিগ এক্সটাতে আলাদা আলাদা ভাবে বাড়তি সময় যোগ করা যাবে।

 

Top Rated Sellers

১. কিছু বিশেষ যোগ্যতা বিবেচনায় রেখে ফাইভার টপ রেটেড সেলার নির্বাচিত করে থাকে।

  • কতদিন যাবৎ ফাইভারে সার্ভিস দিচ্ছেন।
  • বড় এমাউন্টের সেল কি পরিমান পাচ্ছেন।
  • ক্লায়েন্ট রেটিং কতটা ভাল পাচ্ছেন।
  • অন্যদের থেকে আপনার কাস্টমার কেয়ার কতটা বেতিক্রমধর্মী।
  • অর্ডার কেন্সেলেশন এর পরিমান কম কত ।
  • এবং, ফাইভার কমিউনিটিতে আপনার একটিভিটি কেমন।

২. এই সব কিছু গুনের উপর ভিত্তি করে ফাইভার একজন টপ রেটেড সেলার নির্বাচিত করে।

টপ রেটেড সেলারদেরকে আগের রেঙ্ক থেকে অনেক বেশি সুযোগ সুবিধা দেওয়া হয়।

এবং, স্পেশাল একজন ফাইভার এজেন্ট সব সময় স্কাইপিতে যুক্ত থাকেন।

যদিও টপ রেটেড ছাড়াও অনেক ভি আই পি সেলারকে ফাইভার স্কাইপি সাপোর্ট দিয়ে থাকেন।

৩. টপ রেটেড হয়ে যাবার পরেও একজন সেলার সর্বদা যেন তার সেবার মান বজায় রাখেন সেজন্য ফাইভার সব সময় তাকে মনিটরং করে।

৪. টপ রেটেড হবার পর যদি কোন সেলার নিজের সেবার মান বজায় রাখতে না পারে।

অর্থাৎ, অর্ডার কেন্সেলের পরিমান বেড়ে যায়, খারাপ রেটিং পায়, ঠিক সময়ে কাজ ডেলিভারি না করে অথবা, কোন Terms of Service ভঙ্গ করে।

তবে, ফাইভার যে কোন সময় সেই সেলারের রেঙ্ক এবং সুযোগ সুবিধা বাতিল করতে পারে।

 

Seller Features

ফাইভার ব্যবহারের শর্তাবলী –

ফাইভার প্রতিটি সেলারকে কিছু বিশেষ সুবিধা দেয়। যার ফলে একজন সেলার চাইলে বিভিন্নভাবে নিজের সার্ভিস অফার করতে পারেন।

 

Custom Offer

১. কাস্টম অফার ইনবক্সে সেন্ড করা হয়।

২.  ক্লায়েন্টের সাথে কথা বলার পর একজন সেলার চাইলে ক্লায়েন্টের চাহিদা অনুযায়ী ইনবক্সে কাস্টম অফার সেন্ড করতে পারে।

৩. কাস্টম অফারের মধ্যে একজন সেলার তার সেবার সঠিক বর্ণনা, কাজের পরিমান, মূল্য ও কাজ সম্পন্ন করে জমা দেয়ার সময় উল্লেখ করে থাকেন।

৪. কাস্টম অফারের মাধ্যমে সার্ভিস প্রদান করতে কোন বাধা নেই।

 

Fiverr Anywhere

১. আজকের আগে আমি নিজেও এই ফিচারের ব্যাপারে কিছুই জানতাম না।

মানুষকে হেল্প করতে গেলে নিজেরও অনেক কিছু শেখা হয়ে যায়।

২. এটা এমন একটা সুবিধা যার মাধ্যমে আপনি ফাইভারের বাইরের ক্লায়েন্টদেরকেও কাস্টম অফার সেন্ড করতে পারবেন।

তবে তার মানে এই না আপনি ফাইভারের বাইরে ক্লায়েন্টের সাথে কাজ করতে পারবেন।

৩. Fiverr Anywhere এর মাধ্যমে সার্ভিস প্রদানের ক্ষেত্রে অবশ্যই Terms of Service মানতে হবে।

৪. Fiverr Anywhere offer এর মাধ্যমে কোন ক্লায়েন্ট যদি সার্ভিস অর্ডার করতে চায়।

তবে, অবশ্যই আগে তাকে ফাইভারে একাউন্ট খুলতে হবে। যদি আগে থেকে কোন একাউন্ট না থাকে।

৫. কাজ সম্পন্ন করার পর কাজের প্রমান ডেলিভারি পেইজের মাধ্যমে জমা দিতে হবে।

৬. কাজের প্রয়োজনে যে কোন ধরনের যোগাযোগ ফাইভারের ভেতরে (অর্ডার পেইজে) হতে হবে।

ফাইভারের বাইরে যোগাযোগ করা হলে Fiverr Terms of Service এর আওয়াত তারা সুরক্ষিত থাকবে না।

 

Stock Images

১. কাজের প্রয়োজনে অনেক সময় বিভিন্ন ছবি ব্যবহার করা প্রয়োজন হয়।

Stock Images হচ্ছে একটা গিগ এক্সট্রা যার মাধ্যমে ক্লায়েন্টের কাজের প্রয়োজনে ফাইভারের ছবির ভান্ডার থেকে আপনি বিভিন্ন ছবি ব্যবহার করতে পারবেন।

২. Stock Images ব্যবহারের জন্য গিগে একটা আলাদা গিগ এক্সট্রা দেওয়া থাকে।

৩. Stock Images Extra থেকে আয়কৃত রেভিনিউর ২৫% একজন সেলার পায়।

অর্থাৎ, কোন ক্লায়েন্ট যদি মূল গিগের সাথে ২০ ডলারের Stock Images Extra অর্ডার করে।

তাহলে, এই ২০ ডলার থেকে প্রথমে ফাইভার ২০% চার্জ করবে। থাকল ১৬ ডলার। এখান থেকে একজন সেলার পাবে ৪ ডলার এবং ফাইভার পাবে ১২ ডলার।

৪. প্রতিটি স্টক ইমেজ একবারই ব্যবহার করা যাবে। ছবিটা যেই কাজের জন্য ব্যবহার হয়েছে শুধু সেই কাজটা ডেলিভারি করা যাবে।

আলাদা ভাবে ছবির অরিজিনাল ফাইল ডেলিভারি দেওয়া যাবে না এমনকি কারও সাথে শেয়ারও করা যাবে না।

৫. যদি এমন হয় যে Stock Images Extra সহ কোন ক্লায়েন্ট অর্ডার করেছে।

অতঃপর কিছু স্টক ইমেজ নিয়ে কাজও করা হয়েছে এবং কাজটা কেন্সেল হয়ে গেছে তবে কাজের সাথে সাথে স্টক ইমেজের ব্যবহারও কেন্সেল হয়ে যাবে।

 

Stock Image ব্যবহার করার নিয়ম

ফাইভারে বেবহৃত সকল Stock Images GettyImages কতৃক অনুমতিপ্রাপ্ত এবং এর মালিকানা এবং স্বত্বাধিকার GettyImages কতৃক সংরক্ষিত।

Stock Image ব্যবহার করার দ্বারা আপনি সত্যায়িত করছেন যে –

  • নির্দিষ্ট ক্লায়েন্টের কাজের মধ্যে ব্যাবহার করা ছাড়া আপনি Stock Image বিক্রি, পরিবর্তন, পুনরায় ব্যবহার, পুনরায় বিক্রি, বিতরন,পরিদর্শন অথবা অন্য কোনভাবে ব্যবহার করবেন না।
  • কারও জন্য মানহানীকর, পর্ণোগ্রাফী অথবা অন্য কোন অনৈতিক উদ্দেশ্যে আপনি Stock Image ব্যবহার করবেন না।
  • একই গিগের একাধিক কপি বানানোর জন্য টেমপ্লেট আকারে Stock Image ব্যবহার করবেন না।
  • ফাইল শেয়ারিং এর মাধ্যমে Stock Image শেয়ার করবেন না।
  • লোগো, ট্রেডমার্ক অথবা কোন ধরনের ব্রেন্ডিং এর ক্ষেত্রেও Stock Image ব্যাবহার করবেন না।
  • অরিজিনাল ইমেজের ফাইল ক্লায়েন্টের সাথে শেয়ার করবেন না।

কোন Stock Image এ যদি কোন ব্যক্তির ছবি থাকে এবং তা কোন সংবেদনশীল অথবা বিতর্কমুলক কাজের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়।

সেক্ষেত্রে, অবশ্যই পরিষ্কার ভাবে উল্লেখ করতে হবে যে ছবিটি শুধুই উদাহারন হিসেবে ব্যবহার হয়েছে এবং ছবির লোকটি শুধুই একজন মডেল।

 

Shipping Physical Deliveries & Printing Services

আমি যতদূর জানি ফিজিকাল ডেলিভারি অথবা নিজেদের প্রিন্ট করিয়ে দিতে হয় এমন কোন সার্ভিস কেউ ফাইভারে প্রদান করেন না।

আমার জানা মতে বাংলাদেশের সবাই ফাইভারে ডিজিটাল সার্ভিস নিয়ে কাজ করেন যা নিজের কম্পিউটার বা মোবাইলের মাধ্যমেই ডেলিভারি দেওয়া যায়।

তাই এই অংশটা বাদ দিয়ে গেলাম।(“ফিজিকাল ডেলিভারি” দিতে হয় অথবা প্রিন্ট করে দিতে হয় এমন কোন সার্ভিস নিয়ে কেউ ফাইভারে কাজ করলে বলবেন। আমি অনুবাদ করে দেব)।

 

Withdrawing Revenues

১. ফাইভার থেকে আয়কৃত ডলার তোলার জন্য আপনাকে অবশ্যই ফাইভার অনুমোদিত যে কোন একটি Withdrawal Method এ একাউন্ট থাকতে হবে।

২. একই পেমেন্ট মেথডের একটা একাউন্ট একটা ফাইভার প্রফাইলে এড করা যাবে।

৩. কোন অর্ডার কমপ্লিট হবার ১৪ দিন পর সেলার সেই অর্ডার থেকে আয়কৃত টাকা তুলতে পারবেন।

তবে টপ রেটেড সেলাররা ৭ দিন পর রেভিনিউ তুলতে পারবেন।

এই সময়ের মাঝে যদি কোন ক্লায়েন্ট ফিরে এসে কাজ নিয়ে কমপ্লিন করে আর সেটি যথাযথ হয় তবে সম্পূর্ণ ডলার তাকে ফেরত দেয়া হবে।

৪. রেভিনিউ তুলতে হলে একাউন্টের ড্যাশবোর্ড থেকে রেভিনিউ পেইজে গিয়ে পেমেন্ট মেথডের নামের উপর ক্লিক করলেই মেইলে কনফার্মেশন ইমেইল চলে যাবে।

৫. এক এক উইথড্রো মেথডের চার্জ এক এক রকম।

৬. একবার উইথড্রো বাটনে ক্লিক করে ফেললে সেই ডলার আর ফাইভারের একাউন্টে ফেরত নিতে পারবেন না।

 

BUYERS – বায়ারদের জন্য :

বায়ারদের জন্য ফাইভার ব্যবহারের শর্তাবলী –

Basics

সেলারকে ফাইভারের বাইরে সরাসরি পেমেন্ট অফার করা যাবে না।

সেলারের কাছ থেকে ডেলিভারি পাওয়া কাজের স্যাম্পল নিজেদের প্রচারের উদ্দেশ্যে ফাইভার ব্যবহার করতে পারবে।

Post a Request বা Buyer request অপশন ব্যবহার করেও একজন বায়ার, সেলারদের কাছে তার চাহিদা অনুযায়ী সার্ভিস চাইতে পারেন।

তবে সার্ভিসটি অবশ্যই ফাইভার অনুমোদিত হতে হবে।

 

Purchasing – সার্ভিস কেনা

১. সরাসরি সেলারের গিগ থেকে অথবা কাস্টম অফারে “Order Now” বাটনে ক্লিক করে বায়ার সার্ভিস অর্ডার করতে পারবে।

২. অর্ডার করার সাথে সাথে বায়ার কাজের পেমেন্ট ফাইভারকে দিয়ে দেয়।

পেমেন্ট করা ছাড়া কেউ অর্ডার করতে পারে না।

৩. Credit Card, PayPal, Bitcoin অথবা Fiverr Balance থেকেও  গিগ কেনা যায়।

৪. কোন গিগ অর্ডার করার সময় প্রসেসিং ফি কাটা হয়।

তবে অর্ডার ফাইনাল করার পূর্বে প্রিভিউ তে প্রসেসিং ফি সহ মোট খরচ দেখে এর পর পেমেন্ট করা যায়।

অর্ডার করা গিগের মূল্য যদি ২০ ডলার বা তার কম হয় তবে ১ ডলার প্রসেসিং ফি চার্জ করা হবে। আর যদি ২০ ডলারের বেশি হয় তবে মোট মূল্যের ৫% চার্জ করা হবে।

৫. তবে, যদি রেভিনিউ বেলেন্স

অর্থাৎ, যে টাকা আপনিই উপার্জন করেছেন সেখান থেকে অথবা ক্রেডিট কার্ড থেকে কিংবা ফাইভার শপিং বেলেন্স থেকে গিগ অর্ডার করেন তবে কোন প্রসেসিং ফি কাটবে না।

৬. কোন অর্ডার কেন্সেল হলে সেই অর্ডারের প্রসেসিং ফি ফেরত দেয়া হবে না।

৭. একাউন্টে বেলেন্স অথবা রেভিনিউ বেলেন্স থাকা অবস্থায় গিগ অর্ডার করলে গিগের বিল সেখান থেকে কাটা হবে।

তবে সেক্ষেত্র অর্ডারের সম্পূর্ণ এমাউন্ট বেলেন্সে থাকতে হবে।

৮.  ফাইভারর বাইরে কোন সেলারকে পেমেন্ট করা যাবে না।

যদি কোন সেলার বাইরে কাজ করার বা পেমেন্ট দেওয়ার অফার করে।

তাহলে, ক্লায়েন্টকে দ্রুত সাপোর্টে যোগাযোগ করতে হবে।

৯. প্রতারনা, অননুমোদিত লেনদেন (যেমন অর্থ পাচার) এবং অন্যান্য কারনে আমরা পেমেন্ট ইনফরমেশন সংরক্ষন করি না।

তবে বায়ারের কাছ থেকে পেমেন্ট নেওয়া এবং সেলারকে রেভিনিউ দেয়ার জন্য আমাদের পেমেন্ট ভেন্ডরকে (যারা ট্রাঞ্জেকশন প্রসেস করে থাকে তাদের) শুধুমাত্র দেয়া হয়। ( ফাইভার থেকে সংগ্রহীত)

ফাইভার ব্যবহারের শর্তাবলী আরও বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন-  Fiverr terms of service

 

আমার নিজের ভাষায় বলি,

ফাইভার ব্যবহারের শর্তাবলী

Fiverr terms and conditions বা, Fiverr terms of service মূলত কি?

Fiverr laws বা Fiverr rule Bangla হল-

১. ফাইভারের বাইরে যোগাযোগের জন্য ইমেল, স্কাইপ / আইএম ব্যবহারকারীর নাম, টেলিফোন নম্বর বা অন্য কোনও ব্যক্তিগত যোগাযোগের তথ্য অনুরোধ বা সরবরাহ করার অনুমতি নেই।

২. কোনও পরিষেবা চালিয়ে যাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যক্তিগত তথ্যের যে কোনও বিনিময় অর্ডার পৃষ্ঠার মধ্যে বিনিময় হতে পারে।

৩. ফাইভার ক্রেতাদের দেওয়া পরিষেবার স্তরের কোনও গ্যারান্টি সরবরাহ করে না।

আপনি অর্ডার পৃষ্ঠায় প্রদত্ত বিতর্ক সমাধানের সরঞ্জামগুলি ব্যবহার করতে পারেন।

৪. ফাইভার তাদের ব্যবহারকারীর জন্য সুরক্ষা সরবরাহ করে না যারা ফাইভার প্ল্যাটফর্মের বাইরে যোগাযোগ করেন।

আপনি ফাইভারের বাইরে যোগাযোগ করার চেষ্টা করতে পারবেন না ।

৫. সমস্ত তথ্য এবং ফাইল এক্সচেঞ্জগুলি অবশ্যই ফাইভারের প্ল্যাটফর্মে একচেটিয়া ভাবে সম্পাদন করা উচিত।

৬. আপত্তিজনক, অভদ্র, অনুচিত ভাষা বা হিংসাত্মক বার্তাগুলি সহ্য করা হবে না এবং এর ফলে আপনার অ্যাকাউন্ট সতর্কতা বা অ্যাকাউন্ট স্থগিত / অপসারণ হতে পারে।

৭. ফাইভার সবার জন্য উন্মুক্ত। লিঙ্গ, বর্ণ, বয়স, ধর্মীয় অনুষঙ্গ, যৌন পছন্দ বা অন্যথায় ভিত্তি করে কোনও সম্প্রদায়ের সদস্যের বিরুদ্ধে বৈষম্য গ্রহণযোগ্য নয় এবং এর ফলে আপনার অ্যাকাউন্ট স্থগিত / ডিজেবল হতে পারে।

৮, ব্যবহারকারীরা ফাইভারের মাধ্যমে প্রস্তাবিত বা সলিসিটি পার্টিগুলি ফাইবারের বাইরে চুক্তি করতে, জড়িত থাকতে বা অর্থ প্রদানের জন্য জমা দিতে পারবেন না।

৯. অ্যাডাল্ট সার্ভিসেস এবং পর্নোগ্রাফি – ফাইভার কোনও প্রাপ্তবয়স্ক ওরিয়েন্টেড বা অশ্লীল উপকরণ এবং পরিষেবাদির বিনিময়ের অনুমতি দেয় না।

 

মিথ্যা পরিচয়

১০. আপনি ফাইভারে কোনও মিথ্যা পরিচয় তৈরি করতে পারবেন না।

নিজের পরিচয়টি ভূলভাবে উপস্থাপন করতে পারবেন না, নিজের সত্যিকারের ব্যক্তি ব্যতীত অন্য কারও জন্য একটি ফাইভার প্রোফাইল তৈরি করতে পারবেন না।

অথবা, অন্য ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট বা তথ্য ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন না।

আপনার বিবরণ, দক্ষতা, অবস্থান ইত্যাদি সহ আপনার প্রোফাইল তথ্য, বেনামে রাখা হতে পারে, অবশ্যই সঠিক এবং সম্পূর্ণ হতে হবে।

এবং, অবৈধ, বিভ্রান্তিকর, আপত্তিকর বা অন্যথায় ক্ষতিকারক হতে পারে না।

সাইটটি ব্যবহারের জন্য (আইডি, ফোন, ক্যামেরা ইত্যাদি ব্যবহার করে) ব্যবহারকারীদের যাচাইকরণের প্রক্রিয়াটি চালিয়ে যাওয়ার প্রয়োজন ফাইবারের অধিকার সংরক্ষণ করে।

১১. একাধিক অ্যাকাউন্ট বা গণ অ্যাকাউন্ট তৈরির ফলে সম্পর্কিত সমস্ত অ্যাকাউন্ট ডিজেবল করতে পারে।

দ্রষ্টব্য: ফাইবার পরিষেবার শর্তাদি এবং / অথবা আমাদের সম্প্রদায়গত মানগুলির কোনও লঙ্ঘন সমস্ত অ্যাকাউন্ট স্থায়ী স্থগিতের কারণ।

এখানে কিছু বিষয় অতি সাধারন এবং অপ্রয়োজনীয় মনে হতে পারে।

কিন্তু, আমরা সবাই জানি নিয়ম কানুনের দিক থেকে ফাইভার কতটা কঠোর এবং কত তুচ্ছ কারনে তারা সেলারের আইডি সাসপেন্ড করে।

সুতরাং, সাবধান।

 

পরামর্শ : এই Fiverr terms and conditions গুলো ভাল ভাবে পড়ে, বুঝে দক্ষতার সাথে কাজ করলে ইনশা আল্লাহ আপনি ফাইভারে ভাল পজিশনে কাজ করতে পারবেন।

সর্তকতা : সাবধান!!! Fiverr terms of service এর  বাহিরে ব্যতিক্রম কিছু করবেন না। তাহলে একাউন্ট ব্যান হয়ে যাবে।

 

উপসংহারে,

পরিশেষে বলা যায় যে, ফাইভার ব্যবহারের শর্তাবলী কি? Fiverr terms and conditions বিষয়ে এখানে আলোচনা করেছি। সর্বোপরি, উপরে উল্লেখিত ফাইভার ব্যবহারের শর্তাবলী গুলো ভাল ভাবে পড়ে, বুঝে দক্ষতার সাথে কাজ করতে হবে।

আমরা এই পোস্টে জানলাম, ফাইভার ব্যবহারের শর্তাবলী কি? এই পোস্টের বিষয়ে আপনার কিছু জানার থাকলে বা কোন প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

পোস্টটির মাধ্যমে উপকৃত হয়ে থাকলে অবশ্যই লাইক দিয়ে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।

সবসময় সুস্থ, সুন্দর ও নিরাপদে ভাল থাকবেন। আমাদের আরও অন্যান্য পোস্টগুলো ভাল লাগলে অবশ্যই পড়তে পারেন। পরবতীর্তে আমাদের ওয়েবসাইটে আসার অনুরোধ করছি।

এই ধরণের লেখার নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে এবং টুইটারে ফলো করে রাখতে পারেন।

ধন্যবাদ

 

Leave a Comment