অনলাইনে ছবি বিক্রি করে ইনকাম করার উপায় Step By Step

0Shares

 

আপনি কি ক্যামেরাতে বা নিজের মোবাইল ফোনে ভাল ছবি তুলতে পান? বর্তমানে ফটোগ্রাফি করে অনলাইনে ছবি বিক্রি করে ইনকাম ( Make money with photos ) করার একটি বিশেষ সুযোগ রয়েছে।

 

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে ইনকাম করার উপায় ( Make money with photos ) :

অনলাইন থেকে টাকা আয় করার বিভিন্ন উপায় আমি আপনাদের এই ব্লগে বলে এসেছি।

এর মধ্যে ফটোগ্রাফি করে অনলাইন থেকে টাকা আয় করার একটি বিশেষ সুযোগ এর ব্যাপারে আমি আজ আপনাদের বলব – Make money with photos.

আপনি কি ক্যামেরাতে বা নিজের মোবাইল ফোনে ভাল ছবি তুলতে পারেন?

আপনি কি, নিজের আশে পাশে থাকা বিষয় গুলি নিয়ে ছবি উঠিয়ে আনন্দ অনুভব করেন ?

তাহলে, হতে পারে ছবি তোলা আপনার একটি প্যাশন।

এই ছবি তোলার প্যাশনকেই বানিয়ে নিতে পারবেন লাভজনক অনলাইন ইনকামের মাধ্যম।

আপনি অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা ইনকাম বা আয় করতে পারবেন।

আপনার তোলা প্রত্যেকটি ফটো, অনেক সহজে আপনাকে টাকা আয় করে দিতে পারবে।

এই ক্ষেত্রে অনেক ভাল ব্যাপার এটাই যে, এখানে আপনার কোন বিশেষ ধরণের অভিজ্ঞতা, দক্ষতা বা প্রশিক্ষনের প্রয়োজন নেই।

তবে অবশ্যই ক্যামেরা এবং ফটোগ্রাফি নিয়ে সাধারণ অভিজ্ঞতা থাকাটা জরুরি, যদি আপনি ভাল মানের ছবি তুলতে চাচ্ছেন।

তাছাড়া, এভাবে ছবি তুলে অনলাইন টাকা আয় করার জন্য, আপনার কোন ধরণের অনলাইন ওয়েবসাইট বা কোম্পানি তৈরি করার কোন প্রয়োজন হবে না।

তাই, যতদিন আপনি ভাল কোয়ালিটির এবং অসাধারণ ছবি তুলতে থাকবেন।

যেখানে ভাল lighting, color এবং ভাল ভাল natural moments এর মিশ্রণ থাকবে, ততদিন ভাল পরিমানে টাকা আয় করতে পারবেন।

আরও পড়ুন-

 

শেষে, যে কোন অন্য কাজের মতোই, অভিজ্ঞতা এবং কাজের জ্ঞানের সাথে সাথে যতটা বেশি ভাল জোগাড় (camera) এবং ভাল উপকরণ আপনার কাছে থাকবে।

ততটাই ভাল হবে আপনার ফটো এবং তার সাথে আপনার ” অনলাইনে ছবি বিক্রি করে ইনকাম ” করার সুযোগ আরও দুগুণ হয়ে উঠবে।

ইন্টারনেটে বিভিন্ন মাধ্যম রয়েছে, যেগুলি ব্যবহার করে আপনারা নিজে তোলা ছবি গুলি দিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তবে, আমি আজ এই আর্টিকেলে কেবল লাভজনক এবং যেই মাধ্যম ব্যবহার করে অনেক ফটোগ্রাফাররা অনলাইন ইনকাম করছেন সেই বিশেষ মাধমের বিষয়ে বলব।

এই মাধ্যমটি  হল অনলাইন স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট ? Make money with photos, এখন ডিজিটাল মার্কেটিং এবং ইন্টারনেটের যুগ।

এই ক্ষেত্রে, বিভিন্ন ব্লগার, কোম্পানি, ফ্রিল্যান্সাররা এবং অনলাইন বিসনেস গুলি, অনলাইন কনটেন্ট,  বিজ্ঞাপন (advertisement) এবং অন্য অনেক কাজের জন্য স্টক ইমেজ (stock image) ব্যবহার করেন।

এমন ধরণের স্টক ইমেজ ব্যবহার করার ফলে, তাদের একটি ফটোগ্রাফার ভাড়া নিয়ে photo shoot করার খরচ বেঁচে যায়।

এই স্টক ইমেজ গুলি আমার এবং আপনার মতো লোকেরা “স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট” গুলিতে আপলোড করতে পারবেন।

যখনি কেও আপনার আপলোড করা ছবি স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটগুলির থেকে কিনে নিবে, তখন সেই ছবি ব্যবহার করার সম্পূর্ণ অধিকার তাকে দিয়ে দেওয়া হবে।

তার সাথে সাথে আপনিও কিছু পরিমানে টাকা অবশ্যই পেয়ে যাবেন।

এভাবেই কিছু জনপ্রিয় ও স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট গুলিতে ছবি আপলোড করে টাকা আয় করাটা একটি লাভজনক অনলাইন ব্যবসা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

 

স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটে কিভাবে ছবি বিক্রি করবেন :

আপনি যেই স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটে ছবি আপলোড করে অনলাইন টাকা আয় করার কথা ভাবছেন।

সেই ওয়েবসাইটে গিয়ে Affiliate Program , Submit image বা Sell your image বলে অপশন খুঁজতে হবে।

এই ধরণের অপসন পেয়ে যাওয়ার পর একটি নতুন account registration করতে হবে।

একাউন্ট রেজিস্টার স্বাভাবিক ভাবেই করতে হবে, যেখানে আপনার নাম, contact details এবং অন্য কিছু তথ্য নেওয়া হবে।

এভাবে, একটি ফ্রি একাউন্ট তৈরি করার পর, আপনি আপনার নিজের তোলা ছবি গুলি স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটে আপলোড করতে পারবেন।

এখন, যখনি কোন user আপনার আপলোড করা কোন ছবি ডাউনলোড করে নিবে, আপনাকে সেই ইমেজ ওয়েবসাইট থেকে কিছু টাকা দেওয়া হবে।

তাহলে, ইমেজ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ছবি বা ফটো বিক্রি করার জন্য, আপনার সেই ওয়েবসাইটে, প্রথমে রেজিস্টার করে একাউন্ট তৈরি করতে হবে।

তারপর নিজের ছবি বা ফটো গুলো আপলোড করতে হবে।

 

অনলাইন ছবি বিক্রি করে কত টাকা  ইনকাম করা যায় :

এই প্রশ্নের উত্তর বিভিন্ন বিষয়ের ওপরে নির্ভর করে।

আপনি কি প্রত্যেক সপ্তাহে নিয়মিত ভাবে ছবি আপলোড করছেন ?

আপনার একাউন্টে যদি অনেক বেশি পরিমানে ছবি আপলোড করা থাকে ?

কারণ, প্রত্যেক ছবির উপরে আপনাকে কত টাকা দেওয়া হবে, সেটার উপরেই নির্ভর করবে আপনার মোট আয়ের পরিমান।

সেটা ঠিক করবে স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটি, যেখানে আপনি টাকা আয়ের উদ্দেশ্যে ছবি আপলোড করেছেন।

তবে, প্রায় অনেক ভাল এবং পপুলার ওয়েবসাইট আপনাকে প্রত্যেক ছবির বিক্রিতে প্রায় $0.25 থেকে $0.35 র মধ্যে টাকা দিবে।

অনেক কম পরিমানে টাকা দেওয়া হচ্ছে যদিও, মনে রাখবেন যে, আপনার প্রত্যেকটি ফটো বা ছবি বার বার বিক্রি হতে থাকবে।

তাই, যতবার আপনার আপলোড করা অন্য বা একি ছবি বিক্রি হবে এবং ডাউনলোড করা হবে, আপনাকে ততবার টাকা দেওয়া হবে।

তাই, অনলাইন ছবি বিক্রি করে মাসে কত টাকা ইনকাম করা যাবে, এই প্রশ্নের উত্তর নির্ভর করবে, আপনি মাসে কতটা ছবি বিক্রি করেছেন এবং প্রত্যেক ছবিতে আপনাকে কত টাকা দেওয়া হয়েছে।

এভাবে দেখলে, আপনি যদি প্রত্যেক দিন ৫০ টি করে ছবি বিক্রি করছেন। প্র

তিটি ছবি বিক্রির ফলে আপনাকে $0.25 দেওয়া হচ্ছে। তাহলে, 50*0.25 = $ 12.5, মানে $ 12.5* 83 = 1037.5 টাকা প্রত্যেকদিন।

তাই, মাসে আপনার কমেও ইনকাম হচ্ছে, 1037.5 *30 = 31,125/- টাকা।

তাহলে ভাবুন, যদি প্রত্যেক দিন আপনার ১০০ বা তার বেশি ছবি ডাউনলোড করা হয় এবং প্রত্যেক ছবিতে আরও বেশি করে টাকা দেওয়া হয়, তাহলে কতটা ইনকাম আপনার হবে।

এভাবেই, অনেকেই ছবি আপলোড করে ভাল পরিমানে অনলাইন টাকা আয় করে নিচ্ছেন।

 

টাকা ইনকাম করার জন্য কতটা সময় লাগবে :

ছবি বিক্রি করে অনলাইন আয় করার জন্য আপনার কিছু সময় অবশ্যই লাগবে।

কারণ, প্রথম অবস্থায় আপনি বেশি পরিমানে ছবি তুলে আপলোড করতে পারবেন না।

তাই, আপনার ছবি বা ইমেজ বিক্রি বা ডাউনলোড হওয়ার সুযোগ অনেক কম থাকবে।

তবে, কিছু দিন নিয়মিত ভাবে ভাল high quality images তুলে আপলোড করার পর, যখন আপনার একাউন্টে ভাল পরিমানে আলাদা আলাদা বিষয়ে ছবি বা ইমেজ থাকবে, তখন কিছু পরিমানে আপনার ছবি গুলি বিক্রি হওয়া শুরু হয়ে যাবে।

ফলে, ছবি বিক্রি করে আপনার ইনকাম প্রায় চালু হয়ে যাবে।

তাই, এই মাধ্যমে অনলাইন  থেকে ইনকাম শুরু হওয়ার জন্য প্রায় ৫ থেকে ৬ মাসের সময় লেগে যেতে পারে।

তবে, আপনি যদি লোকেদের মধ্যে অনেক চাহিদা থাকা এবং ভাল কোয়ালিটির ছবি তুলে আপলোড করতে পারেন।

তাহলে, অনেক কম সময়ের মধ্যেই ইনকাম শুরু হওয়ার সুযোগ রয়েছে আপনার।

 

আপনার আপলোড করা ছবি কে কিনবে :

আমি উপরে বলেছি যে, এখন ইন্টারনেট এবং ডিজিটাল মার্কেটিং এর সময়।

এই ক্ষেত্রে, বিভিন্ন ব্লগার, কোম্পানি, ফ্রিল্যান্সারর, ওয়েবসাইটের মালিক বা অনলাইন ম্যাগাজিন কোম্পানি গুলি কন্টেন্ট প্রমোশন, মার্কেটিং, বিজ্ঞাপন (advertisement) এবং

আরও অন্যান্য ক্ষেত্রে, এই ধরণের স্টক ইমেজ (stock image) গুলি কিনে ব্যবহার করেন।

তাই, তারাই আপনার ইমেজ গুলি কেনার চাহিদা রাখবেন।

অবশ্যই, ইন্টারনেটে অনেক ফ্রি ইমেজ ওয়েবসাইট রয়েছে, যেগুলির থেকে ফ্রীতে ছবি ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে।

তবে, হাজার হাজার এরকম অনেক ব্লগ বা কনটেন্ট রাইটার রয়েছেন, যারা নিজেদের কনটেন্ট বা আর্টিকেল গুলিতে একটি প্রিমিয়াম ও ভাল কোয়ালিটির ছবি ব্যবহার করেন।

তাই, আপনি যদি অনেক ভাল এবং হাই কোয়ালিটির ছবি দিতে পারেন।

তাহলে, অবশ্যই এই ধরণের বিভিন্ন ব্লগার, কনটেন্ট রাইটার বা কোম্পানি গুলি, ইমেজ ওয়েবসাইট গুলির মাধ্যমে, আপনার আপলোড করা ছবি কিনে নিবেন।

আপনার তোলা ছবি গুলি এরকম হতে হবে যে, দেখেই লোকেরা যাতে আকর্ষিত হয়ে যায় বা কেনার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করে থাকে।

 

সেরা ৬ টি স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট এর নাম :

তাহলে চলুন, এখন আমরা আমাদের আসল বিষয় নিয়ে কথা বলা শুরু করি।

যদি আপনি নিজের মোবাইল বা ক্যামেরা দিয়ে ভাল ভাল ছবি তুলে টাকা আয় করার কথা ভাবছেন, তাহলে নিচে দেওয়া স্টক ফটো ওয়েবসাইট গুলিতে গিয়ে নিজের ছবিগুলি অনলাইন বিক্রি করে আয় করতে পারবেন।

 

১. Adobe Stock :

Adobe stock  হল অনেক নামকরা এবং অনলাইন লোকেদের মধ্যে প্রচলিত এমন একটি পোর্টাল, যেখানে আপনি আপনার তোলা ছবি বা ইমেজ গুলি অনেক সহজেই আপলোড করে বিক্রি করতে পারবেন।

এই ওয়েবসাইটে, বিভিন্ন দেশ এবং জায়গার থেকে প্রত্যেক দিন, হাজার হাজার লোকেরা ভিজিট করেন, বিভিন্ন রকমের প্রিমিয়াম ইমেজ কেনার জন্য।

তাই, আপনি যে কোন জায়গার থেকে হতে পারেন, যদি আপনার ছবি গুলি লোকেদের পছন্দ হয়।

তাহলে ঘরে বসে অনলাইন ইনকাম করার এটা অনেক ভাল একটি সুযোগ হয়ে দাঁড়াবে।

এখানে, নিজের ছবি বা ইমেজ ও ভিডিও বিক্রি করা অনেক সহজ।

আপনার কেবল একটি ফ্রি একাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে ছবি বা ইমেজ ও ভিডিও বিক্রি করার জন্য।

তারপর, এক এক করে নিজের ইমেজ বা বানানো ভিডিও গুলি আপলোড করে নিতে হবে।

এখন যতবার আপনার আপলোড করা ছবি লোকেদের দ্বারা কেনা হবে, আপনাকে নির্দিষ্ট কমিশন (commission) প্রত্যেক বিক্রিতে দেওয়া হবে।

 

২. BigStockPhoto.Com :

ছবি বিক্রি করে আয় করার জন্য সোজা এখানে একটি “contributor account” তৈরি করে নিতে হবে।

তাছাড়া, তাদের অনলাইন টিউটোরিয়াল দেখে, আপনারা সম্পূর্ণ পদ্ধতি বুঝে যাবেন। Contributor account তৈরি করার পর, আপনারা নিজের তোলা ছবি গুলি সেখানে এক এক করে আপলোড করা শুরু করতে পারবেন।

নিয়ম অনুযায়ী, আপনার আপলোড করা ছবি গুলো রিভিউ (review) করা হবে।

যদি আপনার ছবি গুলি Bigstock ওয়েবসাইটের পক্ষ থেকে তাদের image collections এ যোগ করে দেওয়া হয়। তাহলে ভাববেন, আপনার ছবি গুলি এখন যে কেউ কিনে নিতে পারবে।

আপনাকে, প্রত্যেক ছবি ডাউনলোড এর উপরে টাকা দেওয়া হবে।

তাছাড়া, type of payment plan এবং image size এর উপরেও আপনার ইনকাম নির্ভর করবে।

আপনার প্রত্যেক ছবি ডাউনলোড এর বিপরীতে আপনাকে প্রায় $0.25 – $3.00 ভেতরে টাকা দেওয়া হবে।

 

৩. Shutterstock.com :

অনলাইনে ছবি বিক্রি করার জন্য shutterstock নামকরা একটি  প্রিমিয়াম স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট।

প্রত্যেকদিন, প্রায় লক্ষ লক্ষ online marketer এবং content writer তাদের কন্টেন্টের জন্য premium এবং high quality images খোঁজার জন্য এখানে আসেন।

এবং, shutterstock website আজ অব্দি তার high quality images এবং লোকেদের চাহিদা পূরণ করার মতো ছবি দেওয়ার জন্য অনেক প্রচলিত।

এখানে, আপনাকে, client এর subscription plans এর উপরে টাকা দেওয়া হয়।

ওয়েবসাইটটি বলা মতে, আপনি আপনার প্রত্যেক ছবির ডাউনলোডের ওপরে 120 অব্দি টাকা আয় করে নিতে পারবেন।

তবে, একজন contributor হিসেবে, আপনার ছবির বিক্রির প্রায় ২০% থেকে ৩০% মধ্যে আপনাকে দেওয়া হবে।

এবং, আয় করা সম্পূর্ণ টাকা আপনাকে মাসে মাসে shutterstock এর দ্বারা দেওয়া হবে।

তাই, shutterstock থেকে আয় করাটা আপনার জন্য অনেক লাভজনক হতে পারে, যদি আপনি একজন ভাল ফটোগ্রাফার হয়ে থাকেন।

 

৪. Alamy.com :

Alamy ওয়েবসাইটে contributor account তৈরি করে, অনেক সহজেই নিজের ছবি গুলি আপলোড করতে পারবেন।

এখানে প্রত্যেক ছবি বিক্রির ফলে আপনাকে বিক্রির ৪০% থেকে ৫০% মধ্যে ইনকাম দেওয়া হবে।

আয় করা টাকা আপনাদের একসাথে প্রত্যেক মাসের প্রথম তারিখে (working day) দিয়ে দেওয়া হয়।

যখন আপনার contributors account এ, টোটাল $50 এর ইনকাম হয়ে যায়, তখন Fund transfer এর মাধ্যমে টাকা আপনাদের দেওয়া হয়।

 

৫. Fotolia.com :

Fotolia হল অ্যাডোবি স্টক এর একটি আলাদা সার্ভিস।

এখানে আপনাকে ভাল commission rate দেওয়া হয়। এখানে আপনারা ২০ থেকে ৬০% ভেতরে কমিশন ইনকাম করতে পারবেন।

 

৬. IstockPhoto.com :

Istockphoto হল অনেক নামকরা এবং বিখ্যাত একটি micro stock channel যেখানে আপনি আপনার ইমেজ গুলি বিক্রি করার উদ্দেশ্যে আপলোড করতে পারবেন।

তবে, একজন contributor হিসেবে এখানে জয়েন করার আগে, আপনাকে ৩ টি ছবি আপলোড করতে হবে, যেগুলি Istockphoto team এর দ্বারা ভেরিফাই করা হবে।

iStockphoto র, যদি আপনার আপলোড করা ফটো ভাল লেগে থাকে, তাহলে আপনাকে একজন contributor হিসেবে বেঁচে নেওয়া হবে।

তারপর, আপনি আপনার বাকি ছবি আপলোড করে টাকা ইনকাম করা শুরু করতে পারবেন।

 

অনলাইন ছবি বিক্রি করে ইনকাম করা কতটা লাভজনক :

আমি জানি, অনলাইন টাকা ইনকাম করার বেপারটা শুনে আপনারা অনেক আনন্দিত হয়ে যান।

তবে, মনে রাখবেন,

অনলাইন ছবি বিক্রি করে আয় করাটা কিন্তু সবাইর পক্ষে সম্ভব নয়।

কারণ, একটি ছবি লোকেরা তখন কিনবে যখন সেই ছবি দেখতে অনেক সুন্দর ও আকর্ষণীয় হবে, ছবিটির কোয়ালিটি অনেক ভাল হবে এবং ছবিতে থাকা বিষয়টি অনেক ভাল ভাবে তোলা হবে।

এবং, এই সব জিনিস গুলি করাটা সবাইর পক্ষে সম্ভব নয়। Premium image website গুলিতে, এমনিতে অনেক ভাল ভাল ফটোগ্রাফাররা ছবি আপলোড করেন।

তাই, আপনি যদি চাচ্ছেন যে আপনার ছবি গুলি লোকেরা কিনুক,

তাহলে, আপনার ছবির কোয়ালিটি একজন প্রফেশনাল ফটোগ্রাফারের মতোই হতে হবে।

তাছাড়া, প্রায় সব ধরণের stock image website গুলো লো কোয়ালিটি (low quality) ছবি তাদের পোর্টালে approve করেনা।

তাহলে শেষে, আমি এতটুকুই বলবো যে,

আপনি যদি ছবি তোলা ভালবসেন, ছবি তোলা যদি আপনার প্যাশন হয়ে থাকে এবং অনেক ভাল ভাল কোয়ালিটির ছবি আপনি তুলছেন।

তাহলে অনলাইনে ছবি বিক্রি করার এই মাধ্যম অবশ্যই আপনার জন্য লাভজনক।

কিন্তু, যদি আপনি কেবল টাকা আয়ের উদ্দেশ্যে, এই কাজ শুরু করার কথা ভাবছেন এবং সেটাও ফটোগ্রাফিতে কোন যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা ছাড়া, তাহলে খুব সম্ভব আপনার কেবল সময় নষ্ট হবে।

 

পরামর্শ : আপনি চাইলে make money with photos অর্থাৎ ছবি তুলে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। বর্তমানে অনলাইনে ছবি বিক্রি করে ইনকাম করা যায়।

 

মন্তব্য :

পরিশেষে বলা যায় যে, অনলাইনে ছবি বিক্রি করে ইনকাম করার উপায় সম্পর্কে এখানে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। সর্বোপরি, উপরে উল্লেখিত বিষয় গুলো মেনে কাজ করলে ইনশাআল্লাহ আপনি অনলাইনে ছবি বিক্রি করে ইনকাম করতে পারবেন।

কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং করে ইনকাম করা যায় অনলাইন থেকে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে পড়ে নিন। তাছাড়া আমার লেখা  ফাইভার সাক্সেস টিপ্স  পোস্টটি আপনার জন্য খুবই উপকারী হবে।

অতএব, আমার লেখা সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টে জানাতে ভূলবেন না। যদি আমি কোন বিষয় মিস করে থাকি অথবা আপনি আরও কোন বিষয় সম্পর্কে জানতে চান। তাহলে অবশ্যই আমাকে কমেন্ট করে জানাবেন।

এই ধরণের লেখার নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে এবং টুইটারে ফলো করে রাখতে পারেন।

ধন্যবাদ

 

Leave a Comment