আউটসোর্সিং জব পাওয়ার টিপস জানুন অনলাইনে ইনকাম করুন

0Shares

 

অনলাইনে ইনকাম করতে হলে আউটসোর্সিং জব পাওয়ার টিপস (Outsourcing jobs) জানতে হবে।

অনলাইনে সহজে Outsourcing jobs পেতে কিছু কৌশল অবলম্বন করলেই চলে।

ইন্টারনেটের মাধ্যমে Outsourcing work অনেকেই করছেন, আবার অনেকে নতুন করে শুরু করতে যাচ্ছেন।

অনলাইনে সহজে আউটসোর্সিংয়ের কাজ পেতে কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়। আউটসোর্সিং জব পাওয়ার টিপস জানুন অনলাইনে ইনকাম করুন।

 

আউটসোর্সিং কি :

আউটসোর্সিং হল ইন্টারনেট সেবা কাজে লাগিয়ে বাসায় বা নিজের অফিসে বসে অন্যের কাজ করে দেওয়া। কিংবা নিজের পণ্যগুলো ঘরে বসেই বিক্রি করে দেওয়া।

বর্তমানে আপনি ঘরে বসেই ইন্টারনেটের মাধ্যমে একজন ইউরোপের বায়ারের অফিসের কিছু কাজ করে দিতে পারেন।

কাজের বিনিময়ে ইউরোপের বায়ার আপনাকে কিছু অর্থ পরিশোধ করবে যাকে আউটসোর্স ইনকাম বলে।

অর্থাৎ, আপনার মেইন ইনকাম সোর্সের বাইরে আরেকটি ইনকামই হল আউটসোর্সিং।

আউটসোর্স আয়ের পদ্ধতিটাকেই সাধারণত আউটসোর্সিং বলে।

এখন বর্তমানে এটি ছাড়াও নিজের তৈরী বিভিন্ন পণ্য বা সার্ভিস অনলাইনে সেল করে অর্থ উপার্জন করার পদ্ধতিও আউটসোর্সিং এর অন্তর্ভুক্ত।

 

আউটসোর্সিং জব পাওয়ার টিপস :

Outsourcing jobs পাওয়ার টিপস জানুন অনলাইনে আয় করুন।

১. অনেকেই যারা চার পাঁচটা কাজের জন্য আবেদন করেই কাজ পেয়ে যান। আবার কেউ কেউ ১০০টা আবেদন করেও কাজ পান না।

এটা নির্ভর করে আপনি কত কম মূল্যে আবেদন করেছেন তার উপর।

২. যেসব বায়ারের পেমেন্ট মেথড ভেরিফায়েড না সেসব বায়ারের জব পোস্টে আবেদন করবেন না।

কারণ, কোন কনট্রাক্টরকে (ফ্রিল্যান্সার) ভাড়া বা হায়ার করতে হলে তার পেমেন্ট মেথড ভেরিফায়েড থাকতে হয়।

৩. কোন একটা জব পোস্ট করার পর যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সেটিতে আবেদন করবেন ততই ভাল।

৪. আপনি যত বেশি সময় অনলাইনে থাকবেন ততই আপনার কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকবে।

কারণ, কিছু কিছু কাজ আছে, যেগুলো পোস্ট করার এক থেকে দুই ঘণ্টার মধ্যেই সম্পন্ন করে জমা দিতে হয়।

যেমন, ফেসবুকে বা অন্য কোন সাইটে ভোট দেওয়া অথবা কিছু ভোট সংগ্রহ করে দেওয়া।

আবার হঠাৎ করে কোন ওয়েবসাইটে সমস্যা হয়েছে তা ঠিক করে দেওয়া ইত্যাদি।

কাজেই শুরুতে বেশি সময় অনলাইনে থাকার চেষ্ঠা করুন। যাতে বায়ার আপনাকে কোন বার্তা পাঠালে সঙ্গে সঙ্গে তার উত্তর দিতে পারেন।

৫. মার্কেটপ্লেসগুলোতে দেখবেন প্রতি মিনিটে নতুন নতুন জব পোস্ট করা হচ্ছে, সেগুলোতে আবেদন করুন।

যেসব জবে কোন কনট্রাক্টরের সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়েছে, সেসবে আবেদন না করাই ভাল।

কারণ বায়ার যদি এদের মধ্যে পছন্দের কোন কনট্রাক্টর পেয়ে যায় তাহলে আর অন্য কনট্রাক্টরের প্রোফাইল চেক করে দেখবে না।

৬. যেসব জব বা কাজে শর্ত দেওয়া আছে এবং সেই শর্তগুলো যদি আপনি পূরণ করতে না পারেন তাহলে আবেদন না করাই ভাল।

৭. যারা আপওর্য়াকে দুই তিনটা কাজ করেছেন। এখন বেশি মূল্য হারে আবেদন করতে চান।

তারা যে জবটিতে আবেদন করবেন সে জবের নিচে দেখুন বায়ারের আগের জবগুলোর তালিকা দেওয়া আছে।

সেখানে যদি দেখেন বায়ার তার আগের কাজ গুলোতে বেশি ডলার দিয়ে অন্য কনট্রাক্টর ‍দিয়ে কাজ করিয়েছেন, তাহলে আবেদন করতে পারেন।

আর যেসব বায়ার আগের জবগুলোতে বেশি ডলারে কাজ করায়নি, তাদের জবে বেশি রেটে আবেদন না করাই ভাল।

 

৮. পোর্টপোলিও বা অভিজ্ঞতা :

কাজ পাওয়ার জন্য প্রয়োজন পোর্টপোলিও বা অভিজ্ঞতা।

আপনি কিছু কাজ করে তার লিংক তৈরী করে রাখবেন এটা খুবই গুরুত্বপূর্ন।

এটা আপনার কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা বাড়িয়ে দিবে।

আপনি অনলাইনেই কাজ করুন আর অফলাইনেই কাজ করুন না কেন, আপনি কাজ না জানলে কিন্তু আপনাকে কেউ কাজ দিবে না।

তবে ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য আপনার একাডেমিক যোগ্যতার কোন প্রয়োজন নেই।

 

যা প্রয়োজন তা হচ্ছে কোন বিশেষ কাজের দক্ষতা।

সেটা হতে পারে ওয়েব ডিজাইনার, ওয়েব ডেভলপার, গ্রাফিক্স ডিজাইনার, ডাটা এন্ট্রি অপারেটর, ভিডিও এডিটিং,পরামর্শদাতা, কনটেন্ট রাইটার, থ্রিডি ডিজাইনার ইত্যাদি।

এই রকম অসংখ্য কাজের মধ্যে যে কোন একটাতে আপনার ভাল লাগে, সেটা করবেন।

মনে রাখবেন,

আপনি কোন কাজে দক্ষ না হলে প্রথমে কোন ভাবে কাজ পেয়ে গেলেও বেশিদিন টিকে থাকতে পারবেন না।

কারণ সেখানে আপনাকে শুধু বাংলাদেশ নয় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মানুষের সাথে প্রতিযোগিতা করেই কাজ পেতে হবে।

আর একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হতে গেলে আপনার আরেকটি যোগ্যতা লাগবে সেটা হল ইংরেজীতে ভাল দক্ষতা।

কারণ আপনার বায়াররা থাকবে বিদেশী তাদের সাথে যোগাযোগ রক্ষার্থে এবং বায়ার কি চায় তা বুঝার জন্য ইংরেজীতে ভাল দক্ষতা অপরিহার্য ।

পরামর্শ :  আপনি ‍যদি আউটসোর্সিং এ সফলতা অর্জন করতে চান, তাহলে প্রয়োজন পোর্টপোলিও বা অভিজ্ঞতা এবং ইংরেজীতে ভাল দক্ষতা।

 

মন্তব্য :

পরিশেষে বলা যায় যে, আউটসোর্সিং জব পাওয়ার টিপস (Outsourcing jobs) জানুন অনলাইনে ইনকাম করুন এ সম্পর্কে এখানে আলোচনা করেছি।

সর্বোপরি, উপরে উল্লেখিত বিষয় গুলো মেনে কাজ করলে ইনশাআল্লাহ আপনি মার্কেটপ্লেসে সফল ও দক্ষতার সাথে সহজেই ভাল ও সঠিক ফলাফল পাবেন।

অতএব, আমার লেখা সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টে জানাতে ভূলবেন না।

যদি আমি কোন বিষয় মিস করে থাকি অথবা আপনি আরও কোন বিষয় সম্পর্কে জানতে চান তাহলে অবশ্যই আমাকে কমেন্ট করে জানাবেন।

এই ধরণের লেখার নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে এবং টুইটারে ফলো করে রাখতে পারেন।

ধন্যবাদ

 

Leave a Comment